আর্কাইভ কনভাটার ঢাকা, মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Logo

Open Library

আবৃত্তিসহ-নৃত্য-সংগীতে উৎসবমুখর উন্মুক্ত লাইব্রেরি

Bijoy Bangla

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪, ০৬:২৮ পিএম

আবৃত্তিসহ-নৃত্য-সংগীতে উৎসবমুখর উন্মুক্ত লাইব্রেরি
আবৃত্তি-নৃত্য-সংগীতে উৎসবমুখর উন্মুক্ত লাইব্রেরি

গান, নাচ ও আবৃত্তিসহ নানা সাংস্কৃতিক আয়োজনে উদযাপিত হলো উন্মুক্ত লাইব্রেরির দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ‘বই হোক মুক্তির হাতিয়ার’ স্লোগানকে ধারণ করে শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য সংলগ্ন উন্মুক্ত লাইব্রেরি প্রাঙ্গণে দিবসটি উদযাপিত হয়।

 সকাল ১০টায় প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও সম্মিলিত কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে উন্মুক্ত লাইব্রেরি দিবস ১৪৩০ উদযাপনের উদ্বোধন করা হয়। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় মঙ্গলগীত ও মঙ্গল নৃত্য পরিবেশিত হয়।  

বেলা ১১টায় উন্মুক্ত লাইব্রেরি দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে একটি র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিকেলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উন্মুক্ত লাইব্রেরির সাংস্কৃতিক দল ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কবিতা আবৃত্তি, একক ও দলীয় নৃত্য পরিবেশন করেন। সন্ধ্যায় ছিল ব্যান্ড মিউজিকের আয়োজন।  

উন্মুক্ত লাইব্রেরির প্রতিষ্ঠাতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত বলেন, আজ আমরা উন্মুক্ত লাইব্রেরির দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করছি। ভবিষ্যতে আমরা উন্মুক্ত লাইব্রেরির ৫০তম বার্ষিকীও উদযাপন করতে পারব বলে বিশ্বাস করছি। আমি স্বপ্ন দেখি একদিন উন্মুক্ত লাইব্রেরি বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছে ছড়িয়ে পড়বে৷ 

২০২২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফটকে উন্মুক্ত লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠিত হয়। বই পড়া, জ্ঞান চর্চাকে উন্মুক্ত পরিসরে ছড়িয়ে দেওয়া এবং মানুষের মধ্যে বই চর্চার আবহ তৈরির পাশাপাশি সাংস্কৃতিকভাবে মানুষকে উদার, চিন্তাশীল করে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে উন্মুক্ত লাইব্রেরি যাত্রা শুরু করে। উন্মুক্ত লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠার এ দিনটিকে উন্মুক্ত লাইব্রেরি দিবস হিসেবে উদযাপন করা হচ্ছে।  

google.com, pub-6631631227104834, DIRECT, f08c47fec0942fa0