আর্কাইভ কনভাটার ঢাকা, রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

Golden toilet

সোনার কমোড চুরি করেছিলেন তিনি

Bijoy Bangla

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৩ এপ্রিল, ২০২৪, ১২:২৫ পিএম

সোনার কমোড চুরি করেছিলেন তিনি
সোনার টয়লেট। সংগৃহীত ছবি

একটি ১৮ ক্যারেটের সোনার টয়লেট (কমোড) চুরি হয়েছিল যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ডশায়ারের ব্লেনহেইম প্রাসাদ থেকে। এ ঘটনায় আদালতে দোষ স্বীকার করেছেন এক ব্যক্তি। 

এই ব্যক্তির নাম জেমস ‘জিমি’শেন (৩৯)। নর্দাম্পটনশায়ারের ওয়েলিংবরো এলাকায় থাকেন তিনি। চুরি, অপরাধজনিত সম্পদ হস্তান্তর এবং এ কাজের জন্য ষড়যন্ত্রের দোষ স্বীকার করেছেন তিনি। 

চুরির ঘটনাটি ঘটে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে। ওই সময় অক্সফোর্ডশায়ারের বাড়িটিতে এক প্রদর্শনীতে ৪৮ লাখ পাউন্ড মূল্যের সোনার ওই টয়লেট দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছিল। সেখান থেকেই চুরি হয় সেটি।

জেমসকে এইচএমপি ফাইভ ওয়েলস থেকে ভিডিও লিংকের মাধ্যমে অক্সফোর্ড ক্রাউন আদালতের শুনানিতে যুক্ত করা হয়েছিল। এইচএমপি ফাইভ ওয়েলস যুক্তরাজ্যের একটি কারাগার।

বর্তমানে জেমস ১৭ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছেন। চুরির দায়ে এ সাজা হয়েছে তাঁর। এর মধ্যে অর্থ তোলার যন্ত্র থেকে চুরির ঘটনাও রয়েছে।

এর আগে যুক্তরাজ্যের নিউমার্কেট এলাকার জাতীয় ঘোড়দৌড়-বিষয়ক জাদুঘর থেকে চার লাখ পাউন্ড দামের ট্রাক্টর ও অত্যন্ত দামি স্মারক বস্তু চুরি করেছিলেন জেমস।

এ ঘটনায় আরও তিনজন দোষ স্বীকার করেননি। তাঁদের মধ্যে অক্সফোর্ডের বাসিন্দা মাইকেল জোনসের (৩৮) বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ রয়েছে।

অন্যদিকে লন্ডনের বোরা গুচুক (৪০) ও অ্যাসকটের ফ্রেডেরিক সিনসের (৩৫) বিরুদ্ধে অপরাধজনিত সম্পদ হস্তান্তরের ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ রয়েছে।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে এই ব্যক্তিদের বিচার হওয়ার কথা।

সূত্র: বিবিসি

google.com, pub-6631631227104834, DIRECT, f08c47fec0942fa0