আর্কাইভ কনভাটার ঢাকা, মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

92 new books

বইমেলার ১১তম দিনে এসেছে ৯২ নতুন বই

Bijoy Bangla

অনলাইন ডেস্ক:

প্রকাশিত: ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪, ০৮:৪৫ পিএম

বইমেলার ১১তম দিনে এসেছে ৯২ নতুন বই
বইমেলার ১১তম দিনে এসেছে ৯২ নতুন বই

অমর একুশে বইমেলার মাসব্যাপী আয়োজনে প্রতিদিন নতুন আনন্দ আনে নতুন বই। তারই ধারাবাহিকতায় বইমেলার ১১তম দিনে এসেছে ৯২টি নতুন বই।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে বাংলা একাডেমির জনসংযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ বিভাগ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

জানানো হয়েছে, অমর একুশে বইমেলার ১১তম দিনে মেলা শুরু হয়েছে বিকেল ৩টায়, যা চলে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় জন্মশতবার্ষিকী শ্রদ্ধাঞ্জলি : কলিম শরাফী শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সরওয়ার মুর্শেদ।

প্রাবন্ধিক বলেন, বাংলাদেশের সংস্কৃতিচর্চার ক্ষেত্রে কলিম শরাফী প্রাতিস্বিক এক নাম। কেবল একজন সংগঠক বা শিল্পীই নন, তিনি ছিলেন, প্রগতিশীল সংস্কৃতিচর্চার পুরোধা ব্যক্তিত্ব। বিশ শতকের অখণ্ড বাংলা, দেশ-বিভাগোত্তর পূর্ববঙ্গ এবং বাংলাদেশের সবপর্বের সব ধরনের সংকট-উত্তরণে তিনি যে ভূমিকা পালন করেছেন, তা সবিশেষ স্মরণযোগ্য।

সরওয়ার মুর্শেদ আরো বলেন, তার যাপিত জীবন ও সংগ্রামের মূলে ছিল গণ-মানবচেতনা, মুক্তবুদ্ধি এবং প্রগতিকামিতা। তিনি ছিলেন মানুষের সামষ্টিক কল্যাণপ্রত্যাশী।

এসময় আলোচনায় অংশ নেন মাহমুদ সেলিম এবং গোলাম কুদ্দুছ।

তারা বলেন, আজীবন সংগ্রামী শিল্পী কলিম শরাফী ছিলেন আপসহীন একজন মানুষ। দেশ ও জাতির সংকটে সম্মুখ সারিতে দাঁড়িয়ে তিনি প্রতিবাদী ভূমিকা পালন করেছিলেন। প্রচণ্ড বৈরিতা সত্ত্বেও গণমানুষের প্রতি অকুণ্ঠ ভালোবাসা, মানবতাবাদী সংস্কৃতিবোধ, কল্যাণমুখী, অসাম্প্রদায়িক এবং প্রগতিশীল সমাজ ও রাষ্ট্র নির্মাণের আকাঙ্ক্ষা তিনি কখনো ত্যাগ করেননি। সমাজ-সংস্কৃতির সবক্ষেত্রেই তিনি তার সৃজনশীল প্রতিভার প্রমাণ রেখেছেন। মানবতাবাদী কলিম শরাফী বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ানোকেই তার জীবনের আদর্শ হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক রূপা চক্রবর্তী। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, বহুমাত্রিক ব্যক্তিত্ব কলিম শরাফী তাঁর দীর্ঘ কর্মময় জীবনে অন্যায়ের কাছে কখনো মাথা নত করেননি। তার দ্যুতিময় ব্যক্তিত্ব, অকুতোভয় চিত্ত এবং লড়াকু জীবনাদর্শ আমাদের প্রত্যয়ী করে।

অপরদিকে 'আজ লেখক বলছি' অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন কবি সরকার মাসুদ, কথাসাহিত্যিক নূরুদ্দিন জাহাঙ্গীর, প্রাবন্ধিক ও গবেষক মোহাম্মদ জয়নুদ্দীন এবং নাট্য গবেষক মাহফুজা হিলালী।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ করেন- কবি আসলাম সানী, তপন বাগচী, মারুফ রায়হান, জাহিদ মুস্তাফা, স্নিগ্ধা বাউল এবং শাহিদা পারভীন রেখা। আবৃত্তি পরিবেশন করেন- আবৃত্তিশিল্পী সোহরাব হোসেন, তামান্না তিথি এবং ফয়জুল আলম পাপ্পু। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পুথি পাঠ করেন লাল মাহমুদ।

আগামীকালের বইমেলার সময়সূচি

আগামীকাল সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) অমর একুশে বইমেলার ১২তম দিন। মেলা শুরু হবে বিকেল ৩টায় এবং চলবে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে জন্মশতবার্ষিকী শ্রদ্ধাঞ্জলি : হেনা দাস শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন জোবাইদা নাসরীন। আলোচনা করবেন ঝর্না রহমান এবং ফওজিয়া মোসলেম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন শিরীণ আখতার।


অচ / বি 


google.com, pub-6631631227104834, DIRECT, f08c47fec0942fa0